• ঢাকা বুধবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৩০ ভাদ্র ১৪২৯

‘অর্থনৈতিক নীতি গ্রহণে বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশের পাশে থাকবে’

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২, ১২:১১ এএম

‘অর্থনৈতিক নীতি গ্রহণে বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশের পাশে থাকবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক

অর্থনৈতিক নীতি গ্রহণে বিশ্বব্যাংক সহযোগী হিসেবে বাংলাদেশের পাশে থাকবে বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির ভাইস প্রেসিডেন্ট মার্টিন রেইজার। মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তিনি এ কথা জানান।

ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর এটিই তার প্রথম বাংলাদেশ সফর। তিন দিনের সফরে ১৯ সেপ্টেম্বর ঢাকায় আসেন মার্টিন রেইজার।

অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সভায় বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট মার্টিন রেইজার বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রশংসা করেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের বিভিন্ন সময়োচিত পদক্ষেপেরও প্রশংসা করেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন সহযোগী। সংস্থাটি বাংলাদেশের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ, দুর্যোগ মোকাবিলা খাতসহ বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে বাজেট সহায়তা দিয়েছে।’

একই সঙ্গে কোভিড মোকাবিলা এবং কোভিড ভ্যাকসিন ক্রয়ে অর্থায়নের জন্য বিশ্বব্যাংককে তিনি ধন্যবাদ জানান।

অর্থমন্ত্রী দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের বিভিন্ন উদ্যোগে বিশ্বব্যাংকের আরও জোরদার ও ফলপ্রসূ অংশীদারিত্বের উপর গুরুত্বারোপ করেন। ঢাকাকে আরও বাসযোগ্য করে গড়ে তুলতে বিশ্বব্যাংক বিভিন্ন দেশের অভিজ্ঞতা বিনিময় করতে পারে বলেও অভিমত ব্যক্ত করেন মন্ত্রী।

বাংলাদেশের অগ্রগতির ধারাবাহিকতা বিশ্বের অনেক দেশের কাছে অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত বলে অভিহিত করে মার্টিন রেইজার বলেন, ‘বাংলাদেশ সর্বোচ্চ আইডিএ ঋণ গ্রহণকারী দেশের মধ্যে অন্যতম। বাংলাদেশ নিজেই তাদের অর্থনৈতিক নীতি গ্রহণ করবে, সহযোগী হিসাবে বিশ্বব্যাংক পাশে থাকবে। বাংলাদেশ-বিশ্বব্যাংক সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তিতে বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশের অদম্য অগ্রগতি অন্য দেশকে জানাতে চায়। বাংলাদেশের সঙ্গে বিশ্বব্যাংকের দৃঢ় সম্পর্ক রয়েছে এবং বিশ্বব্যাংক সবসময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে।’

দ্বিপক্ষীয় সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার, অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব মিজ ফাতিমা ইয়াসমিন, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব মিজ শরিফা খান, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব শেখ মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ প্রমুখ।

জেইউ

আর্কাইভ