• ঢাকা বুধবার
    ২৯ মে, ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ইসরাইলকে চড়া মূল্য দিতে হবে এরদোগানের হুঁশিয়ারি

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৩, ২০২৪, ০৪:১২ পিএম

ইসরাইলকে চড়া মূল্য দিতে হবে এরদোগানের হুঁশিয়ারি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ইসরাইলকে চড়া মূল্য দিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান। গাজায় অব্যাহত নৃশংসতার জন্য ইসরাইলকে সন্ত্রাসী রাষ্ট্র উল্লেখ করেন। 

শুক্রবার টেলিফোনে ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে কথোপকথনের সময় এরদোগান এই হুঁশিয়ারি দেন। খবর ডেইলি সাবাহ ও আনাদোলু এজেন্সির।

তুরস্ক ইসরাইল সেনাদের বর্বর হামলার বিরুদ্ধে গাজার পরিবারগুলোর পাশে থাকার নিশ্চিয়তা মাহমুদ আব্বাসকে দিয়েছেন।

যুদ্ধ জর্জরিত গাজা উপত্যকা ১৭ বছর ধরে ইসরাইলি দখলদারিত্বের অধীনে রয়েছে। ইসরাইলি হামলায় লাখো ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। তাদের বেশিরভাগই নারী ও শিশু।

পশ্চিমা বিশ্ব বরাবরই ইসরাইলি বর্বরতার বিপক্ষে নীরব। ইসরাইল সাংবাদিক, সংবাদপত্রের স্বাধীনতায় আঘাত হানছে যাতে এসব নৃশংসতার খবর না প্রকাশ করতে পারে।                                   —রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান

এরদোগান বলেন, গাজায় যুদ্ধবিরতির লক্ষ্যে সব ধরনের পদক্ষেপ নিতে হবে। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে রেজুল্যুশন পাশ করতে হবে।ইসরাইলকে পূর্ণাঙ্গ সংহতির পথে আসতে হবে।

এরদোগান বলেন, পশ্চিমা বিশ্ব বরাবরই ইসরাইলি বর্বরতার বিপক্ষে নীরব। ইসরাইল সাংবাদিক, সংবাদপত্রের স্বাধীনতায় আঘাত হানছে যাতে এসব নৃশংসতার খবর না প্রকাশ করতে পারে।

 

উল্লেখ্য, গাজায় যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে যারা এর সমালোচনা করছেন রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান তাদের মধ্যে অন্যতম।এরদোগান ইসরাইল ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ ও হামাসের মধ্যে আলোচনা চালিয়ে এই যুদ্ধ সমাপ্তির দিকে নিয়ে যাওয়ার অন্যতম উদ্যোগী।

এরদোগান হামাস পূর্ণাঙ্গ সমর্থন দিয়েছেন। পশ্চিমা সংগঠনটিকে সন্ত্রাসী তকমা দিলেও তুর্কি প্রেসিডেন্ট এর বিপক্ষে।

এরদোগান ইসরাইলকে সন্ত্রাসী রাষ্ট্র বলে আখ্যা দিয়েছেন। গাজায় হত্যাযজ্ঞ চালানোর জন্য তিনি ইসরাইলকে দোষছেন।

৭ অক্টোবর শুরু হওয়া ইসরাইল হামাস সংঘাতে এ পর্যন্ত ৩৩ হাজার ৬০০ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৭৬ হাজার ফিলিস্তিনি।

আর্কাইভ