• ঢাকা রবিবার
    ২৭ নভেম্বর, ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

কোথায় হবে বিএনপির সমাবেশ, জানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৪, ২০২২, ০৮:০৪ পিএম

কোথায় হবে বিএনপির সমাবেশ, জানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

‍‍`আমরা আমাদের ডিএমপি কমিশনারকে জানিয়েছি যে তারা (বিএনপি) সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে তাদের সমাবেশের অনুমতি পাবে।‍‍`

সিটি নিউজ ডেস্ক


শর্ত সাপেক্ষে আগামী ১০ ডিসেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের জন্য বিএনপিকে অনুমতি দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সদরঘাটে বিলাসবহুল লঞ্চ সুন্দরবন-১৬ উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‍‍`আমরা আমাদের ডিএমপি কমিশনারকে জানিয়েছি যে, তারা (বিএনপি) সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে তাদের সমাবেশের অনুমতি পাবে।‍‍`

‍‍`তবে তাদের কোনো সহিংসতায় লিপ্ত হওয়া উচিত নয়,‍‍` যোগ করেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‍‍আমরা তাদের বাধা দেইনি এবং তারা (বিএনপি) সারা দেশে তাদের কর্মসূচি পালন করছে।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, ফেসবুকে ঢুকলেই মনে হয় তারেক জিয়া দেশে এসে পড়েছে। তাদের আচরণে মনে হয় ক্ষমতায় আসতে ভোট লাগে না। নির্বাচন আসলেই দেশে ষড়যন্ত্র শুরু হয়। শেখ হাসিনা জনগণের শক্তির উপরেই বিশ্বাসী। তিনি সব সময় জয়ী হয়ে এসেছেন জনগণকে সঙ্গে নিয়েই। ষড়যন্ত্র করে বিএননপি ক্ষমতায় এসেছিল। এখনো ষড়যন্ত্র করে ক্ষমতায় আসতে চায় তারা।

তিনি বলেন, শুধু শেখ হাসিনাই পেরেছেন বাংলাদেশকে বদলে দিতে। জনগণ মনে করে শেখ হাসিনার বিকল্প শেখ হাসিনাই। এ দেশের জনগণ আর কোনো দিন ভুল করবে না। তারা শেখ হাসিনাকেই ভোট দেবে। কোনো ষড়যন্ত্র কাজ হবে না।

 

এর আগে মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুকের কার্যালয়ে গিয়ে নয়াপল্টনে ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশ করার অনুমতি চায় বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল। ডিএমপি কমিশনার বরাবর বিএনপির পক্ষ থেকে নয়াপল্টনে সমাবেশের অনুমতি চেয়ে লিখিত দরখাস্ত দেয়া হয়।

এ সময় ঢাকা মহানগর উত্তরের আহ্বায়ক আমানউল্লাহ আমান, কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম, প্রচার সম্পাদক ও বিএনপির মিডিয়া সেলের সদস্যসচিব শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানি, বিএনপি ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ সদস্যসচিব আমিনুল হক, রফিকুল আলম মজনু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ডিএমপি কমিশনারের কার্যালয় থেকে বের হয়ে আমানউল্লাহ আমান সাংবাদিকদের বলেন, আমরা আমাদের দফতর থেকে চিঠি দিয়েছি। আমরা নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশের অনুমতি চেয়েছি। এখানে আমরা আগেও সমাবেশ করেছি। আমরা বলেছি, সমাবেশটি হবে শান্তিপূর্ণ।

 

তিনি সাংবাদিকদের আরও বলেন, আপনারা দেখেছেন, আগের সমাবেশগুলোর আগে সব গণপরিবহন বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। আমরা বলেছি, ঢাকায় সমাবেশের আগে এভাবে গণপরিবহন বন্ধ করা যাবে না। এ বিষয়টি দেখতে অনুরোধ করেছি। আমরা বলেছি, সমাবেশে যারা আসবে তারা যেন কোনো বাধার সম্মুখীন না হয়। তাদের ওপর যেন কোনো ধরনের আক্রমণ করা না হয়।

জ্বালানি তেলসহ দ্রব্যমূল্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি ও সাম্প্রতিক সময়ে দলের একাধিক নেতাকর্মীকে হত্যার প্রতিবাদ এবং দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবিতে বিভাগীয় সমাবেশ করছে বিএনপি। এর আগে চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, রংপুর, খুলনা, বরিশাল, ফরিদপুরে সমাবেশ করেছে দলটি। 

আগামী ১৯ নভেম্বর সিলেটে এবং ৩ ডিসেম্বর বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা।

 

সাজেদ/এএল
 

আর্কাইভ