• ঢাকা শুক্রবার
    ২১ জুন, ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১

ইউক্রেনের ওপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহারের হুমকি হাঙ্গেরির

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২৩, ০৫:২৮ পিএম

ইউক্রেনের ওপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহারের হুমকি হাঙ্গেরির

ছবি: সংগৃহীত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ইউক্রেনের ভূখণ্ডে জাতিগত হাঙ্গেরিয়ানদের অধিকার পুনর্বহাল না করা পর্যন্ত বুদাপেস্ট রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে কিয়েভকে সমর্থন করবে না।

সোমবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দেশটির পার্লামেন্টে এ মন্তব্য করেছেন হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর ওরবান।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ‘দ্য হিল’ এক প্রতিবেদনে জানায়, সোমবার হাঙ্গেরির পার্লামেন্টে আইনপ্রণেতাদের উদ্দেশে দেশটির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর ওরবান বলেছেন, ‘২০১৭ সালে ইউক্রেনে বিদ্যালয়ে সংখ্যালঘুদের ভাষার ব্যবহার নিয়ে একটি আইন পাস করা হয়েছে। আমি এ আইনের বিরোধিতা করি।’

ওরবান আরও বলেন, ইউক্রেনীয় ভূখণ্ডে হাঙ্গেরিয়ান জাতিগোষ্ঠীর অধিকার পুনর্বহাল না করা পর্যন্ত কোনও আন্তর্জাতিক ইস্যুতে কিয়েভকে সমর্থন করবে না বুদাপেস্ট।

তিনি বলেন, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে শান্তির জন্য হাঙ্গেরি সবকিছু করছে। কিন্তু যুদ্ধ চলছেই। আর এতে লাখ লাখ মানুষকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, ‘দেশের কূটনীতিকদের উচিত সেনাদের হাত থেকে নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়া। নাহলে বাড়িতে বসে মহিলারা যুদ্ধ শেষে তাদের বাবা, স্বামী ও সন্তানের ফেরার জন্য অপেক্ষা করবেন; কিন্তু কোনও লাভ হবে না।’

ভিক্টর ওরবান সুইডেন প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘দেশটির ন্যাটোতে যোগদানের বিষয়ে সম্মতি দিতে কোনও তাড়া নেই হাঙ্গেরির। সুইডেনের ন্যাটোতে যোগদানে তাড়া দেয়ার মতো যদি কোনও বিষয় থাকতো, তাহলে আমি খুশি হতাম। কিন্তু এমন কোনও পরিস্থিতি আমি দেখছি না।’

তার এই মন্তব্যের পর  ধারণা করা হচ্ছে, সুইডেনের ন্যাটোতে যোগদান আরও বিলম্বিত হতে পারে।

এর আগে, গত শুক্রবার (২২ সেপ্টেম্বর) নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের ফাঁকে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভের সঙ্গে বৈঠকের পর এক সাক্ষাৎকারে হাঙ্গেরির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পিটার সিজ্জার্তো বলেছিলেন, ‘আমরা যদি নিষেধাজ্ঞার বাস্তব দৃষ্টিকোণ থেকে দেখি, তাহলে দেখতে পাবো রাশিয়ার চেয়ে ইউরোপেরই বেশি ক্ষতি হচ্ছে। এ অবস্থায় মস্কোর ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রয়োজন দেখি না।’

 

সিটি নিউজ ঢাকার ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন

 

জেকেএস/

আন্তর্জাতিক সম্পর্কিত আরও

আর্কাইভ