• ঢাকা বুধবার
    ২৯ মে, ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
উত্তরাখণ্ড

১০ দিন পর এক ঝলক দেখা গেল টানেলে আটকেপড়া শ্রমিকদের

প্রকাশিত: নভেম্বর ২১, ২০২৩, ০৭:৫৯ পিএম

১০ দিন পর এক ঝলক দেখা গেল টানেলে আটকেপড়া শ্রমিকদের

ছবি: সংগৃহীত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতের উত্তরাখণ্ডের একটি নির্মাণাধীন টানেল ধসে আটকা পড়েছেন ৪১ শ্রমিক। এ ঘটনার দশম দিনে এসে প্রথমবারের মতো এক ঝলক দেখা গেছে তাদের।

মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, টানেলে আটকে পড়া ৪১ শ্রমিককে সোমবার রাতে ধ্বংসস্তূপের ভেতর দিয়ে ছয় ইঞ্চির একটি পাইপের সাহায্যে খাবার পাঠানো হয়। ওই পাইপের ভেতরেই একটি এন্ডোস্কপি ফ্লেক্সি ক্যামেরা সেট করে দেয়া হয়। আজ সকালে ওই ক্যামেরাতেই তাদের দেখা গেছে।

ক্যামেরার ফুটেজে শ্রমিকদের হাত নাড়তে দেখা গেছে। এ সময় উদ্ধারকারী কর্মকর্তারা ওয়াকিটকির মাধ্যমে তাদের (শ্রমিকদের) ক্যামেরার সামনে আসতে বলেন। কর্মকর্তারা তাদের টানেল থেকে বের করে আনার বিষয়ে আশ্বস্ত করেন।

উদ্ধার অভিযান পরিচালনাকারী কর্মকর্তা কর্ণেল দীপক পাতিল বলেন, ‘শ্রমিকদের কাছে শিগগিরই মোবাইল ও চার্জার পাঠানো হবে।’

এর আগে এনডিটিভি জানিয়েছে, এতদিন ধরে নির্মাণাধীন টানেলে আটকেপড়া শ্রমিকদের পাইপের মাধ্যমে শুকনো খাবার পাঠানো হলেও সোমবার নতুন একটি পাইপের মাধ্যমে রান্না করা খাবার পাঠানো হয়েছে।

ওই ৪১ শ্রমিকের জন্য খাবার প্রস্তুতকারক হেমান্ত নামের এক ব্যক্তি বলেন, ‘শ্রমিকদের কাছে এবারই প্রথম গরম খাবার যাচ্ছে। আমরা তাদের কাছে বোতলে ভরে খিচুড়ি পাঠাচ্ছি। আমাদেরকে যেসব খাবার রান্না করতে বলা হয়েছে আমরা সেসবই পাঠাচ্ছি।’

 পাঁচটি সংস্থা পাঁচ রকমভাবে উদ্ধারকাজ শুরু করেছে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। আটকেপড়া শ্রমিকদের কাছে দ্রুত পৌঁছাতে তিন দিক দিয়ে সুড়ঙ্গ খোঁড়া হচ্ছে। এ ছাড়া উদ্ধারকাজে অংশ নিয়েছেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর নির্মাণ শাখার সেনারাও। খাদ্য, পানীয় ও অক্সিজেন পৌঁছে দিতে এবং উদ্ধারকাজ সহজ করতে বিভিন্ন দিক দিয়ে সুড়ঙ্গ তৈরি করা হচ্ছে।

গত ১২ নভেম্বর উত্তরাখণ্ডের সিল্কইয়ারা ও দান্দানগাঁওকে সংযুক্তকারী টানেল নির্মাণের কাজ শেষে বের হচ্ছিলেন নাইট শিফটের শ্রমিকরা। এ সময় ডে শিফটের শ্রমিকরা প্রবেশ করতে গেলে হঠাৎ করেই সেটি ধসে পড়ে। এতে সেখানে ৪১ জন শ্রমিক আটকা পড়েন।

 

সিটি নিউজ ঢাকার ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন

 

জেকেএস/

আর্কাইভ