• ঢাকা বুধবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৩০ ভাদ্র ১৪২৯

ক্যাম্পাস পরিচ্ছন্নতা অভিযানে ইবির তারুণ্য

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২২, ০৫:১১ এএম

ক্যাম্পাস পরিচ্ছন্নতা অভিযানে ইবির তারুণ্য

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

‍‍`তারুণ্যের আশ্বাস, পরিচ্ছন্ন ক্যাম্পাস‍‍` প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অরাজনৈতিক, স্বেচ্ছাসেবী ও জনকল্যাণমূলক সংগঠন তারুণ্য ক্যাম্পাস পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান সম্পন্ন করেছে।

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) তারুণ্যের একদল স্বেচ্ছাসেবী শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসের প্রায় ১০০ বস্তা বর্জ্য পরিষ্কার করে। পুরো বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসজুড়ে এ অভিযান পরিচালিত হয়।

সংগঠনটির সভাপতি আশিফা ইসরাত ও সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলামের নেতৃত্বে প্রায় ৭০ জন সদস্য নিয়ে ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সকল স্থানগুলোতে ১০টি টিম প্রায় ৪ ঘণ্টাব্যাপী এ পরিচ্ছন্নতা অভিযান সম্পন্ন করে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন তারুণ্যের সাবেক সভাপতি মো. সাকির হোসেন।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম বলেন, ‘চিরসবুজ এই ক্যাম্পাস আমাদের অসচেতনতার কারণে প্রায় সময়ই অপরিষ্কার থাকে। সচেতনতা ও অভ্যাসের মাধ্যমে আমরা চাইলেই পারি সবুজ এই ক্যাম্পাসকে পরিষ্কার রাখতে। তার জন্য চাই পর্যাপ্ত ডাস্টবিন ও তদারকির ব্যবস্থা। যেটা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ ছাড়া সম্ভব নয়। প্রশাসনের প্রতি আমাদের বিনীত অনুরোধ, ক্যাম্পাসে পর্যাপ্ত পরিমাণে ডাস্টবিন স্থাপন ও তদারকির ব্যবস্থা করা। এ ছাড়া ক্যাম্পাসকে পরিচ্ছন্ন রাখতে সকলকে সচেতন হতে হবে।’

সভাপতি আশিফা ইসরাত বলেন, ‘আমরা চাই ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস হবে বাংলাদেশের অন্যতম পরিচ্ছন্ন ক্যাম্পাস। সে লক্ষ্যেই তারুণ্য’র স্বেচ্ছাসেবকরা ক্যাম্পাস পরিষ্কারের উদ্দেশ্যে কাজ করেছে। সবুজে ভরপুর সুন্দর ক্যাম্পাসের সৌন্দর্য যেমনভাবে আমাদের চোখকে শান্তি দেয় তেমনি ক্যাম্পাস অপরিষ্কার থাকলে সেটা চোখের পীড়ার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। নিজেদের এই সুন্দর ক্যাম্পাসকে পরিষ্কার করে রাখার দায়িত্ব আমাদের নিজেদেরই। যাদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে এ অভিযান সম্ভব হয়েছে সকল তারুণ্যের স্বেচ্ছাসেবকদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

উল্লেখ্য, তারুণ্য একটি অরাজনৈতিক, স্বেচ্ছাসেবী ও জনকল্যাণমূলক সংগঠন। যা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দ্বারা পরিচালিত। ‍‍`অবারিত সম্ভাবনা নিয়ে জাগ্রত তারুণ্য‍‍` প্রতিপাদ্য নিয়ে ২০০৯ সালের ২৯ জুলাই যাত্রা শুরু করে সংগঠনটি। বৈষম্যহীন সমাজ গঠনে তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগানো, তরুণদের স্বেচ্ছাসেবী মনোভাবসম্পন্ন করে গড়ে তোলা, নেতৃত্ব দক্ষতা তৈরি, সামাজিক উন্নয়নমূলক কাজ, শিল্প ও সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ গঠনে বইপাঠ, প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় অংশগ্রহণ, বনায়ন, রক্তদান, শীতবস্ত্র বিতরণ ও অসহায় শিক্ষার্থীদের সহযোগিতাসহ নানা সামাজিক কাজ করে যাচ্ছে তারুণ্য।
 

আর্কাইভ