• ঢাকা শুক্রবার
    ০৯ ডিসেম্বর, ২০২২, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

বিপিএলের সাত ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকানা পেল যারা

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২, ০৫:৩৫ পিএম

বিপিএলের সাত ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকানা পেল যারা

প্রতীক ওমর

আগামী তিন বছরের জন্য বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) সাতটি ফ্র্যাঞ্চাইজি চূড়ান্ত করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ৯টি আগ্রহী প্রতিষ্ঠান থেকে দুটিকে বাদ দিয়ে বাকি সাতটি বেছে নিয়েছে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। তাতে কুমিল্লা দল পেলেও মালিকানা বদলে গেছে সিলেট ও ঢাকার।

বরিশালের ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকানা এবারও থাকছে ফরচুন বরিশাল স্পোর্টস লিমিটেডের। আগেরবারের মতো খুলনার মালিকানা পেয়েছে মাইন্ড ট্রি গ্রুপ। প্রগতি গ্রিন অটো রাইস মিল গতবার ছিল সিলেটের ফ্র্যাঞ্চাইজির দায়িত্বে। এবার তারা পেয়েছে ঢাকা। ফিউচার স্পোর্টস বাংলাদেশ লিমিটেড পেয়েছে সিলেট ফ্র্যাঞ্চাইজির সত্ত্ব।

বসুন্ধরা গ্রুপের টগি স্পোর্টস লিমিটেডের হাতে থাকছে রংপুর। ডেল্টা স্পোর্টস চট্টগ্রাম। কুমিল্লা লিজেন্ডস লিমিটেড পাচ্ছে কুমিল্লার ফ্র্যাঞ্চাইজি। নির্বাচিত এই দলগুলোকে আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে বিপিএলের তিন বছরের সত্ত্ব চূড়ান্ত করতে আহবান জানিয়েছে বিসিবি।

বিসিবির বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, ৩০ আগস্ট ছিল বিপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজির নেওয়ার আবেদন করার শেষ দিন। নির্ধারিত সময়ে ৯টি প্রতিষ্ঠান দল নিতে প্রস্তাবনা জমা দেয়। যেখানে বিপিএলের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ছিল না। পরে ফ্র্যাঞ্চাইজি পাওয়ার জন্য লিখিত আবেদন করে তারা।

বিপিএলে রাজশাহী থেকে দল নিতে বৈশাখী গ্রুপ আবেদন করেছিল, সাকিবের মোনার্ক হোল্ডিংস লিমিটেড প্রস্তাবনা জমা দিয়েছিল। এছাড়া রূপা গ্রুপ দল নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছিল। তবে শেষ পর্যন্ত দল পায়নি তারা।

বিপিএলের বড় ফ্র্যাঞ্চাইজি বেক্সিমকো গ্রুপের ঢাকা ডাইনামাইটস দল নেওয়ার জন্য আবেদন করেনি। আগ্রহ প্রকাশ করেনি বিপিএলের নিয়মিত দল খুলনা টাইটান্স বা জেমকন গ্রপ। বড় ওই ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো বিপিএলের লভ্যাংশ শেয়ার চায়। কিন্তু বিপিএলের গর্ভনিং কাউন্সিল ওই শর্তে রাজি না হওয়ায় দল নেয়নি বেক্সিমকো, জেমকন গ্রুপ।

বিপিএলের নবম আসর শুরু হওয়ার কথা আসছে জানুয়ারিতে। তবে ওই সময় আমিরাত প্রিমিয়ার লিগ ও সাউথ আফ্রিকার টি-টোয়েন্টি লিগের কারণে প্রভাব পড়বে বিপিএলে। দল চূড়ান্ত করলেও এখনো পর্যন্ত প্লেয়ার্স ড্রাফটসহ অন্যান্য অনেক বিষয় ঠিক করতে পারেনি বিসিবি।

জেডআই/

আর্কাইভ