• ঢাকা বুধবার
    ০১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১৮ মাঘ ১৪২৯

পাইকারিতেই ডিমের দাম বেড়েছে ১২০ টাকা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৩, ২০২৩, ১১:৪০ এএম

পাইকারিতেই ডিমের দাম বেড়েছে ১২০ টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা

আবারও বেড়েছে ডিমের দাম। প্রতি ১০০ পিস ডিমের দাম গত সপ্তাহের চেয়ে আজ বেড়েছে ১২০-১৪০ টাকা। তবে অপরিবর্তিত রয়েছে ব্রয়লার মুরগির দাম। গত সপ্তাহের মতো আজও প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৪০-১৫০ টাকায়। এছাড়া পাকিস্তানি ব্রয়লার প্রতি কেজি ২২০ টাকা ও দেশি মুরগি প্রতি কেজি ৪০০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে। গত সপ্তাহেও একই দাম ছিল বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। 

শুক্রবার (১৩ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর রায়েরবাজার, ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর টাউন হলের বাজার ঘুরে এ তথ্য জানা গেছে। 

রাজধানীর রায়ের বাজার সিটি কর্পোরেশন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, আজ প্রতি ১০০ পিস ব্রয়লার সাদা ডিম পাইকারি বাজারে ৯২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এ হিসেবে পাইকারিতে প্রতি হালির ডিমের দাম ৩৩টা পড়েছে। গত সপ্তাহে এ ডিম বিক্রি হয় প্রতি হালি ৩২ টাকা। 

এদিকে ব্রয়লার লাল ডিম ১০০ পিস পাইকারি বাজারে আজ বিক্রি হচ্ছে ৯৬০ টাকায়। সেই হিসেবে প্রতি হালির দাম প্রায় ৩৮ টাকা পড়েছে। গত সপ্তাহে এই ডিমের দাম ছিল ৩২ টাকার মতো। এছাড়া ১০০ পিস হাঁসের ডিমের দাম গত সপ্তাহে ছিল ১৫৫০ টাকা। আজ তা বেড়ে হয়েছে ১৭০০ টাকা। পাইকারি বাজারে ডিমের দামের এ প্রভাব খুচরা বাজারেও পড়বে। তাই গত সপ্তাহের চেয়ে আজ বেশি দামে ডিম কিনতে হবে ক্রেতাদের। 

dhakapost

দাম বেড়ে যাওয়া প্রসঙ্গে রায়ের বাজার সিটি কর্পোরেশন বাজারে তাকওয়া পোল্ট্রির মালিক মাওলানা রফিকুল ইসলাম বলেন, আমি দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে ডিমের ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। শীতের সময় ডিমের দাম কমে। অতীতেও ডিমের দাম কমেছিল কিন্তু এবার উল্টো ঘটনা ঘটল।  

একই বাজারের দোকানদার মমতাজ উদ্দিন বলেন, ডিমের বাজার কখন কী হবে কেউ বলতে পারবে না। ডিমের বাজার প্রতি সপ্তাহে কমে বাড়ে। এ সময় কমার কথা থাকলে বাড়ছে। সবজির মৌসুমে ডিমের দাম বাড়ার কারণ কেউ করতে পারছে না। পাড়া-মহল্লার দোকানে লাল ডিমের হালি বিক্রি হচ্ছে ৪৪ থেকে ৪৫ টাকায়।

মোহাম্মদপুরের বাসিন্দা হাছান বলেন, বাজারে শীতকালীন সবজি ভরপুর। অনেকেই এখন ডিম কেনা কমিয়ে দিয়েছে। এখন যদি ডিমের দাম বাড়ে তাহলে গরিব মানুষ যাবে কোথায়? 

এদিকে চলতি সপ্তাহে দাম বাড়েনি দেশি ও ব্রয়লার মুরগির। গত সপ্তাহের মতোই চলতি সপ্তাহে একই দামে বিক্রি হচ্ছে। প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি ১৪০-১৫০ টাকা, পাকিস্তানি ব্রয়লার প্রতি কেজি ২২০ টাকা ও দেশি মুরগি প্রতি কেজি ৪০০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে।  

খুচরা ব্যবসায়ী মো. আবুল কালাম আজাদ ঢাকা পোস্টকে বলেন, গত সপ্তাহের তুলনায় এ সপ্তাহে তেমন দাম বাড়েনি। ৫-১০ টাকা এদিক সেদিক হয়েছে। 

আর্কাইভ