• ঢাকা রবিবার
    ২৭ নভেম্বর, ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

পাবনায় গৃহবধূর গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২, ০৬:৩৫ পিএম

পাবনায় গৃহবধূর গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার

পাবনা প্রতিনিধি

পাবনার বেড়া উপজেলায় শিউলী খাতুন (২৮) নামের এক গৃহবধূর গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) ভোর ৪টার দিকে আমিনপুর থানা এলাকার রূপপুর থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহতের মা-বাবা ও স্থানীয়দের অভিযোগ শিউলী খাতুনকে তার স্বামী হত্যা করেছে।

নিহত শিউলী খাতুন আমিনপুর থানা এলাকার বাদাই গ্রামের বিদুৎ হোসেনের (৩৮) স্ত্রী ও রূপপুর গ্রামের তোফাজ্জল হোসেন ওরফে তুজাইয়ের মেয়ে।

প্রতিবেশী মকলেছুর রহমান জানান, বিদ্যুৎ হোসেন মালয়েশিয়া থেকে ৭-৮ মাস আগে দেশে ফিরে তার দ্বিতীয় স্ত্রী শিউলি খাতুনের বাবা তোজাম্মেল শেখে ওরফে তুজাইয়ের বাড়িতে উঠেন।

নিহত শিউলী খাতুনের বাবা তোফাজ্জল হোসেন জানান, ৮ মাস আগে বাদাই গ্রামের মোকছেদ ওরফে পুকাই শেখের ছেলে বিদুৎ হোসেনের সঙ্গে তার মেয়ের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে মেয়ে শিউলী খাতুন তার বাড়িতেই বসবাস করতেন।

শিউলী খাতুনের মা করিম বেগম বলেন, ‘গতকাল রাত ১০টার দিকে আমার মেয়ে তার স্বামীর সঙ্গে খাওয়াদাওয়া শেষ করে তাদের রুমে ঘুমাতে যায়। ভোর ৪টার দিকে উঠে ঘর থেকে বের হয়ে দেখি শিউলীর ঘরের দরজা খোলা। তাৎক্ষণিক শিউলীর বাবাকে নিয়ে রুমে গিয়ে দেখি আমার মেয়ে গলা কাটা অবস্থায় মাটিতে পড়ে আছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার মেয়ে শিউলীকে বিদ্যুৎ গলা কেটে হত্যা করেছে। আমি বিদ্যুৎতের ফাঁসি চাই।’

এ বিষয়ে আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি রওশন আলী জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে একটি হত্যা মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতার করে হত্যা রহস্য উদঘাটন করা হবে।

 

আর্কাইভ