• ঢাকা রবিবার
    ২৭ নভেম্বর, ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

সমকামী বন্ধুর সঙ্গে এসএসসি পরিক্ষার্থী উধাও

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২, ১০:১৭ পিএম

সমকামী বন্ধুর সঙ্গে এসএসসি পরিক্ষার্থী উধাও

ময়মনসিংহ ব্যুরো

ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলায় সমকামী বন্ধুর সঙ্গে এসএসসি পরিক্ষার্থী পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পালানো দুই তরুনীর নাম  আঁখি আকতার ও বৃষ্টি।  শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) পলাশীহাটা স্কুল এন্ড কলেজের এসএসসি পরিক্ষা কেন্দ্র থেকে উধাও হয়ে যায় তারা । দুজনেই উপজেলার সন্তোষপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবার এসএসসি পরিক্ষার্থী ছিল। আঁখি পরিক্ষায় অংশগ্রহণ করলেও বৃষ্টি পরিক্ষায় অংশ গ্রহন করেনি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল কদ্দুছ।

জানা যায়, ৪ দিন আগে জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার দুয়ারী ইউনিয়নে বৃষ্টিসহ ৪ সমকামীকে আটক করে পুলিশে দিয়েছিল স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আঃ রাজ্জাক স্বপন।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, উপজেলার সন্তোষপুর গ্রামের হাবিবুর রহমানের মেয়ে বৃষ্টির সাথে পাশ্ববর্তী মুক্তাগাছা উপজেলার মহেশপুর গ্রামের আমিনুল হকের মেয়ে আঁখির সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) আঁখির পিতা আমিনুল হক পরিক্ষার হলে পৌঁছে দিয়ে বাইরে মেয়ের জন্য অপেক্ষায় ছিলেন। আঁখি সেদিন ইসলামের ইতিহাস পরিক্ষায় অংশ গ্রহন না করে বৃষ্টির সাথে পালিয়ে যায়। এ নিয়ে থানায় জিডি হলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

রবিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকালে আঁখি তার পিতার ফোনে জানান, সে বৃষ্টির সাথে ঢাকায় অবস্থান করছে। কোথায় আছেন এমন কথা না বলে মোবাইল কেটে দেন।

আঁখির পিতা আমিনুল হক জানান, ৩ মাস আগে আমার মেয়েটাকে বিয়ে দিয়েছি। বৃষ্টি আমার মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিল। আমি বলে ছিলাম তোমরা দুজনে মেয়ে, বিয়ে করবে কি করে। তখন বৃষ্টি বলে ছিল সমস্যা হবে না। আপনার মেয়ে আমার কাছে সুখে থাকবে। সে থেকে আমার মেয়েকে আমি শাসনে রেখে ছিলাম। আমার মেয়েকে ফিরে পাওয়ার জন্য থানায় জিডি করেছি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল কদ্দুছ জানান, বৃষ্টিও ফরম ফিলাপ করেছিল কিন্তু পরিক্ষায় অংশ গ্রহন করে নাই। তবে মেয়েটি অন্য মেয়ের চেয়ে ভিন্ন আচরন করতো। ভিন্ন পোশাক পরিধান করতো। পরিক্ষার হল থেকে আঁখি বৃষ্টির সাথে পালিয়ে গেছে।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাসুদ আহমেদ জানান, আঁখির বাবা আমাদেরকে আগে জানাননি। আগে জানালে আমরা ব্যবস্থা গ্রহন করতে পারতাম। মেয়ে উদ্ধার হওয়া দরকার। মেয়েটি সমকামীদের খপ্পরে পড়েছে।

ফুলবাড়ীয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম আজাদ জানান, আঁখির বাবা থানায় একটি জি ডি করেছেন।

উল্লেখ্য, চার দিন আগে জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে বৃষ্টিসহ চার সমকামীকে আটক করেছিলেন। দুয়ারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আঃ রাজ্জাক স্বপন চার সমকামীকে পুলিশে দিয়েছিলেন বলে  জানান স্থানীয় সাংবাদিক ইসমাইল হোসেন। চার সমকামী আটকের ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছিল বলেও জানান তিনি। পরে পুলিশ তাদেরকে অভিভাবকদের জিম্মায় ছেড়ে দিয়ে ছিলেন।

এআরআই

আর্কাইভ