• ঢাকা শুক্রবার
    ২১ জুন, ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
আওয়ামী লীগ নেতারা মন্তব্য করেছেন

‘যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নীতি সব দলের জন্যই সতর্কবার্তা’

প্রকাশিত: মে ২৬, ২০২৩, ০১:২৪ এএম

‘যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নীতি সব দলের জন্যই সতর্কবার্তা’

ছবি: সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা

যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নীতি সুনির্দিষ্ট কোনো দলকে উদ্দেশ্য করে নয়, সব দলের জন্যই সতর্কবার্তা- এমন মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ নেতারা। তারা বলেন, সরকার এমন কিছুই করবে না যাতে দেশের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়।

নির্বাচন সামনে রেখে পাল্টাপাল্টি সভা সমাবেশে সরগরম রাজনৈতিক দলগুলো। এরইমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন ভিসানীতি ঘোষণার পর বিষয়টি নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) সকালে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৪তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে তার কবরে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নিয়ে শ্রদ্ধা জানান দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দিয়ে বলেন, নির্বাচনকে সামনে রেখে যারা আন্দোলনের নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার চেষ্টা করবে, তাদের কঠোর জবাব দেবে আওয়ামী লীগ।

কাদের আরও বলেন, ‘আগামী জাতীয় নির্বাচন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে, অবাধ সুষ্ঠুভাবে করা হবে। এ নির্বাচনে যারা বাধা দেবে তাদেরকে অবশ্যই প্রতিহত করা হবে। যারা আন্দোনের নামে নির্বাচনকে সামনে রেখে বাসে আগুন দেয়, ভাঙচুর করে এরাই একটি পলিটিক্যাল ভায়োলেন্সে আছে। কাজেই ওদের খবর আছে।’

যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নীতির বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তারা বলেছে নির্বাচনে বাধা দিলে ভিসা নয়। আমাদেরও এটাই কথা, এই নির্বাচনে যারা বাধা দেবে তাদের অবশ্যই প্রতিহত করব।’

যারাই সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করবে তাদের ক্ষেত্রেই যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নিষেধাজ্ঞা আসবে দাবি করে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘সরকার এমন কিছুই করবে না, যাতে দেশের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া ব্যহত হয়।’

সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কৃষিমন্ত্রী বলেন, যে কোনো মূল্যে সুষ্ঠু নির্বাচনে সরকার বদ্ধপরিকর।তিনি আরও বলেন, ‘মার্কিন ভিসা নীতিতে সরকার চিন্তিত না, এটি বিএনপিসহ সবার জন্য সতর্কবার্তা।’

সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন ভিসা নীতির প্রসঙ্গে আব্দুর রাজ্জাক আরও বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচনে বাধা দিলে যুক্তরাষ্ট্র ভিসা নিষেধাজ্ঞার যে হুঁশিয়ারি দিয়েছে সেই বিষয়ে সরকার চিন্তিত নয় এবং কোনো চাপও অনুভব করছে না। এটি সবার জন্য সতর্কবার্তা। বিএনপির জন্যও প্রযোজ্য। ভিসা প্রক্রিয়া পরিবর্তন সব নাগরিকের জন্য সমান। এটা আলাদা কোনো দল বা ব্যক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা নয়। আমার মনে হয় ভিসা প্রক্রিয়ার এই পরিবর্তন বিএনপির জন্যও প্রযোজ্য। তারা মানুষ পুড়িয়েছে, গণপরিবহনে আগুন দিয়েছে ও গর্ভবতী মায়ের অ্যাম্বুলেন্স আটকে রেখেছে। এগুলোর কারণে তাদের ভিসা প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হতে পারে। নতুন এ ভিসা নীতি দেশে অশুভ শক্তি, অসাংবিধানিক শক্তি- যারা পাকিস্তানি কায়দায় নির্বাচন ছাড়া ক্ষমতায় আসতে চায়, তাদেরকেও নিরুৎসাহিত করবে বলেও মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশে একটি সুষ্ঠু, সুন্দর ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন দেখতে চায়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বার বার বলেছেন, সম্প্রতি কাতার সফরেও বলেছেন, দেশে আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু, সুন্দর ও গ্রহণযোগ্য হবে।

গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে কৃষিমন্ত্রী বলেন, সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের আয়োজন করবে। সরকার তাতে সহায়তা করবে।

উন্নয়নের কারণেই আওয়ামী লীগ সরকারকে জনগণ বার বার ভোট দিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণই ঠিক করবে কারা ক্ষমতায় যাবে। জনগণ যাদের ভোট দেবেন, তারাই দেশ পরিচালনা করবে।


উল্লেখ্য, ‘বাংলাদেশের তত্ত্বাবধায়ক সরকার ইস্যুতে মাথাব্যথা নেই যুক্তরাষ্ট্রের। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনই লক্ষ্য।’ ব্রিফিংয়ে স্পষ্ট এভাবে করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার। একই সঙ্গে বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনে সরকারের লক্ষ্য অর্জনে সহায়তায় নতুন ভিসা নীতি ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এই নীতি অনুযায়ী ভোট বানচালের ষড়যন্ত্র করলে তাকে ও তার পরিবারের সদস্যদের ভিসা দেবে না দেশটি। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে প্রতিদিনই কোনো একটি জরুরি বিষয় নিয়ে বক্তব্য শুরু করেন সংস্থাটির মুখপাত্র। বুধবার দফতরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলারের বক্তব্যে স্থান পায় বাংলাদেশ প্রসঙ্গ। এসময় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনের একটি লিখিত বিবৃতি পড়ে শোনান তিনি। বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনে সরকারের লক্ষ্য অর্জনে সহায়তার অংশ হিসেবে একটি নতুন ভিসা নীতির ঘোষণা দেন তিনি। বিরোধী দল কোনো সহিংসতা করলে এই নীতির আওতায় তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়ার ইঙ্গিত দেয়া হয়।

 

জেকেএস/

রাজনীতি সম্পর্কিত আরও

আর্কাইভ