• ঢাকা বৃহস্পতিবার
    ১৩ জুন, ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

যে কারণে অভিষেক-কারিশমার বিয়ে ভেঙে যায়

প্রকাশিত: মে ২, ২০২৪, ০১:১৭ পিএম

যে কারণে অভিষেক-কারিশমার বিয়ে ভেঙে যায়

বিনোদন ডেস্ক

বচ্চন এবং কাপুর পরিবারের আত্মিয়তার সম্পর্ক  জমে উঠে বিয়ে প্রায় পাকাপাকি হয়। অমিতাভ বচ্চন ও জয়া বচ্চন ঘোষণাও দিয়েছিলেন তাদের হবু বউয়ের নাম। অভিষেক-কারিশমার বাগদানও হয়ে যায়। কিন্তু বনিবনা না হওয়ার কারণে তা ভেঙে যায় শেষ পর্যন্ত।

২০০২ সালে অভিষেক-কারিশমার বিয়ের খবর ছিল বলিপাড়ার ঝলমলে খবর। সবাইকে চমকে দিয়ে বচ্চন পরিবার ঘোষণা করেছিলেন ছেলের বাগদানের সেই তথ্য।

বলিউডের অন্দরমহলে খবর ছড়িয়েছিল, কারিশমা কাপুরের মা জানিয়েছিলেন, কম প্রতিষ্ঠিত অভিষেকের সঙ্গে মেয়ের বিয়ে দিতে চান না। তাই ভেঙে যায় বিয়ে। কিন্তু এই তথ্যটি পুরোপুরি সঠিক নয়।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম থেকে জানা যায়, কারিশমা চেয়েছিলেন অমিতাভের বাড়ি জলসাতে না থাকতে। অভিষেককে নিয়ে আলাদা থাকতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু বাবা অন্তপ্রাণ অভিষেক নিজের বাবার সঙ্গে এমনটা করতে পারেননি। একসঙ্গে থাকাতেই বিশ্বাসী ছিলেন অমিতাভ। তাই আলাদা হতে পারবেন না বলে কারিশমাকেই জীবন থেকে দূরে সরান অভিষেক।

শোনা যায়, কারিশমা নাকি আরও দাবি করেন, বচ্চন পরিবারের অর্ধেক সম্পত্তি লিখে দিতে হবে তার হবু স্বামীকে। এই কথাও মানেনি অমিতাভের পরিবার।

কারিশমা কাপুরের আর বচ্চন পরিবারের বউ হওয়া হয়নি। পরবর্তীতে ব্যবসায়ীকে বিয়ে করেন তিনি। কিন্তু সেই বিয়েও সুখের হয়নি। কারিশমার স্বামী হানমিুনেই নববধুকে টাকা দিয়ে বন্ধুর কাছে বিক্রি করতে চেয়েছিলেন। এই তথ্য অবশ্য অনেক পরে জানাজানি জয়। বর্তমানে ঐশ্বরিয়াকে নিয়ে অভিষেক মন্দের ভালো সময় পার করছেন। তাদের বিচ্ছেদের গুঞ্জন শোনা গেলেও সেসবের কোনো সত্যতা পাওয়া যায়নি।

আর্কাইভ