• ঢাকা বৃহস্পতিবার
    ১৩ জুন, ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
ভারত-পাকিস্তান

বাড়তি উত্তেজনা, ম্যাচের পরতে পরতে থাকে রোমাঞ্চ

প্রকাশিত: জুন ১০, ২০২৪, ১২:৩৪ এএম

বাড়তি উত্তেজনা, ম্যাচের পরতে পরতে থাকে রোমাঞ্চ

ক্রীড়া ডেস্ক

এশিয়ার দুই ক্রিকেট পরাশক্তি ভারত-পাকিস্তান। এই দুই দলের খেলা মানেই বাড়তি উত্তেজনা। ম্যাচের পরতে পরতে থাকে রোমাঞ্চ। সীমান্ত সমস্যার কারণে গত এক যুগেরও বেশি সময় হলো ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ বন্ধ।

যে কারণে এই দুই দলের খেলা দেখার জন্য ভক্ত-সমর্থকদের অধীর আগ্রহে বসে থাকতে হয়। আইসিসি এবং এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের টুর্নামেন্ট ছাড়া দুই দলের মাঠের লড়াই দেখা যায় না। অথচ দুই দলের খেলার উত্তেজনা যুদ্ধের মতো ছড়িয়ে পড়ে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসর চলছে। এবারের আসরের শুরুতে আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে মিশন শুরু করে ভারত। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে হেরে সুপার এইটে ওঠার শঙ্কায় পড়ে গেছে পাকিস্তান। আজকের ম্যাচে জিততে না পারলে বাবর আজমদের গ্রুপপর্ব থেকেই বিদায় নিতে হতে পারে।

এমন কঠিন সমীকরণের ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে খেলতে নেমে দারুণ বোলিং করেছেন পাকিস্তানের ৪ তারকা পেসার হারিস রউফ, নাসিম শাহ, মোহাম্মদ আমির ও শাহিন শাহ আফ্রিদি। 

এই চার তারকার গতির মুখে পড়ে ১৯ রানে ২ বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মার মতো তারকা ব্যাটসম্যানের উইকেট হারিয়ে প্রাথমিকভাবে চাপে পড়ে যায় ভারত। এরপর ঋষ। পন্থের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে একটা সময়ে ১৪ ওভারে ভারতের সংগ্রহ ছিল ৫ উইকেটে ৯৬ রান।

এরপর মাত্র ২৩ রানের ব্যবধানে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৯ ওভারে ১১৯ রানেই অলআউট হয় সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ভারত। পাকিস্তানের হয়ে ৩ ওভারে ২১ রানে ৩ উইকেট নেন হারিস রউফ। ৪ ওভারে ২১ রানে ৩ উইকেট নেন নাসিম শাহ। ৪ ওভারে ২৩ রানে ২ উইকেট নেন মোহাম্মদ আমির।

ভারতকে গুঁড়িয়ে দিয়ে পাকিস্তানের তারকা পেসার মোহাম্মদ আমির প্রথম ইনিংস শেষে বলেন, ‘আমি মনে করি আমরা বোলিং ইউনিট হিসেবে ভালো করেছি। জয় পেতে হলে আমাদের সংবেদনশীল ব্যাটিং করতে হবে।’

পাকিস্তানের অভিজ্ঞ এই পেসার বলেন, ‘এই উইকেটে ভারতের বিপক্ষে ১২০ বলে ১২০ রান করাও কঠিন কাজ। আমাদের ভালো শুরু করতে হবে এবং ভালোভাবে শেষ করতে হবে।’

আর্কাইভ